ন্যায়বিচার এখনও দেশে প্রতিষ্ঠিত আছে, আজ প্রমাণ পাওয়া গেল : মিন্নির বাবা

ন্যায়বিচার এখনও দেশে প্রতিষ্ঠিত আছে, আজ প্রমাণ পাওয়া গেল : মিন্নির বাবা, দেশের বহুল আলোচিত বরগুনার রিফাত শরীফ হ’ত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে দেওয়া হাইকোর্টের জামিনে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন তার বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর।

আজ ২৯ আগস্ট বৃহস্পতিবার হাইকোর্ট প্রাঙ্গণে তিনি বলেন, ‘আলহামদুলিল্লাহ, আমি খুব খুশি যে ন্যায়বিচার এখনও দেশে প্রতিষ্ঠিত হয়, এটার প্রমাণ আজ পাওয়া গেলো। দুষ্কৃতিকারীরা যেগুলো করছে এগুলো সব জনসম্মূখে প্রচার পেয়েছে। এজন্য আমি আন্তরিকভাবে গর্বিত। সুন্দর একটি রায় পেয়েছি। এটি আমার বিজয়।’এর আগে আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে জামিন দেন বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ। আদালত তার রায়ে বলেন, “তদন্ত প্রক্রিয়া যেহেতু শেষের দিকে এবং এ অবস্থায় তদন্ত প্রভাবিত করার কোন সুযোগ নেই, তাই আমরা জামিন মঞ্জুর করলাম।”

মিন্নির আইনজীবি জেড আই খান পান্না বলেন, “মিন্নির বয়স, সে একজন নারী, তার সংশ্লিষ্টতা কতটুকু আছে এবং যে পদ্ধতিতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দী গ্রহণ করা হয়েছে, যেভাবে মিন্নিকে আদালতে পেশ করার সময় তার পক্ষে যে কোন আইনজীবি ছিলো না, এফআইআর এ তার নাম নেই এবং এ মামলার একমাত্র স্বাক্ষী- এসব বিবেচনায় নিয়ে তাকে মু্ক্তি দেয়া হয়েছে।”

এর আগে গতকাল বুধবার তার জামিন প্রশ্নে রুলের ওপর শুনানি শেষে বৃহস্পতিবার রায়ের জন্য এ দিন ধার্য করা হয়। এর আগে গত ২০ আগস্ট এক সপ্তাহের রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে ২৮ আগস্ট মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে সিডি (কেস ডকেট) নিয়ে হাইকোর্টে হাজির হতে বলা হয়।

English

Justice is still established in the country, evidence was found today: Minnie’s father, Mozammel Hossain Kishore, has expressed satisfaction with the High Court bail granted to his wife, Ayesha Siddiqua Minnie, in the case of Rifat Sharif of Barguna.

“Alhamdulillah, I am very happy that justice is still established in the country,” he said in the High Court premises on Thursday, August 26, today. All that the abusers are doing is getting publicity. That’s why I’m so proud. Got a verdict. This is my victory. ”Earlier, Ayesha Siddiqua granted Minnie bail to Justice M Inayetur Rahim and Justice Md. Mostafizur Rahman’s High Court Bench. The court said in its verdict, “Since the inquiry process is at an end and there is no scope to affect the investigation, we granted bail.”

Minnie’s lawyer Z A Khan Panna said, “Minnie’s age, she is a woman, how much she is involved and the manner in which the statement was taken, as Minnie did not have a lawyer on her side when she was presented in court, and her name is not in the FIR. The only witness in the case – he has been acquitted on these considerations. “

Earlier on Wednesday, he was set for judgment on Thursday after hearing the rule on his bail question. The High Court had earlier issued a one-week rule on August 28. At the same time, the investigating officer of the case was asked to appear before the High Court with a CD (case docket).

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *